Home দেশ অগাস্টের পরেই খুলবে দেশের সমস্ত স্কুল-কলেজের দরজা

অগাস্টের পরেই খুলবে দেশের সমস্ত স্কুল-কলেজের দরজা

by Webdesk

অগাস্টের পরেই খুলবে দেশের সমস্ত স্কুল-কলেজের দরজা। এমনটাই জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়নমন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল নিশঙ্ক। দেশে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ। তাই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি খুলে পড়ুয়াদের জীবনের ঝুঁকি নিতে চায় না সরকার। রমেশ পোখরিয়ালের কথায়,” শিক্ষক,শিক্ষিকা ও ছাত্র ছাত্রীদের জীবন ভীষণ মূল্যবান! পরীক্ষার থেকে অনেক, অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ । ”

জুন মাসে স্কুল-কলেজ বন্ধ রাখাকেই শ্রেয় বলে মনে করা হচ্ছে সরকারের তরফে। তবে স্কুল-কলেজ খুললেও মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত সমস্ত রকমের নিয়মাবলী মেনে চলার পরামর্শ দেওয়া হয় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে। করোনা রুখতে গত মার্চের মাঝামাঝি থেকে দেশের সমস্ত স্কুল-কলেজ বন্ধ ছিল। দফায় দফায় লকডাউনের জেরে ফের কবে তা খুলবে, তা নিয়ে পড়ুয়া, অভিভাবকদের সঙ্গে চিন্তায় ছিল কেন্দ্রও। প্রথমে মনে করা হয়েছিল, জুলাইয়ের শেষে স্কুল-কলেজ খুলবে। তবে ৩ জুন একটি সাক্ষাৎকারে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল স্পষ্টই জানিয়েছেন যে, অগস্টের পরই দেশের সমস্ত স্কুল-কলেজ খোলা হবে।

আরো পড়ুন – পরিযায়ী শ্রমিকদের পাশে দেব- কড়া সমালোচনা করলেন অন্যন্য সেলিব্রিটিদের

মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী আরও জানিয়েছেন যে, সম্ভবত ১৫ অগস্টের পর সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা হবে। তবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি খুললেও প্রথমে গ্রিন এবং অরেঞ্জ জোনে খুলবে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান৷ নির্দিষ্ট সামাজিক দূরত্ব মেনে, অল্প সংখ্যক পড়ুয়ার উপস্থিতির মাধ্যমে শুরু হবে স্কুল, এবং তা করা হবে দুটি শিফটে৷ তবে কবে স্কুল-কলেজের দরজা খুলবে, তা নিয়ে কোনও স্পষ্ট নির্দেশিকা দেয়নি কেন্দ্রীয় সরকার।

আরও জানা গেছে, নীচু ক্লাসের ছাত্ররা আপাততঃ স্কুলে আসার প্রয়োজন নেই। যেহেতু ছোটদের পক্ষে সবসসময় স্বাস্থ্যেবিধির কথা মাথায় রেখে মেনে চলা সম্ভব নয়। তাই তাদের সুরক্ষার জন্যই আপাতত এই নিয়ম বহাল করবে সরকার। বাড়ি থেকেই তারা পড়াশুনা করুক।
সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি ও নিয়ম মেনে স্কুল চালু হলেও করা যাবে না কোনো জমায়েত সেখানে। অর্থাৎ স্কুলের পরিভাষায় কোনোরকম ‘ স্কুল অ্যাসেম্বলি ‘ করা যাবে না।

আরো পড়ুন –দক্ষিণবঙ্গের 10 জেলায় বজ্রবিদ্যুৎ সহ ঝড় বৃষ্টির খবর পাওয়া গেল।

এছাড়াও স্কুলের অন্দরে শিক্ষকদের মাস্ক ও গ্লাভস পড়াটা বাধ্যতামূলক হবে। সকলের জন্য ব্যবস্থা রাখতে হবে থার্মাল চেকিংয়ের। সিসিটিভি ফুটেজে স্কুল কর্তৃপক্ষকে কড়া নজর রাখতে হবে যাতে এই স্বাস্থ্যেবিধি ঠিকঠাক পালন করা হয়।

You may also like

2 comments

Leave a Reply!