Home বঙ্গ সেপ্টেম্বর থেকে মিলতে পারে কাঞ্চনজঙ্ঘার দর্শন

সেপ্টেম্বর থেকে মিলতে পারে কাঞ্চনজঙ্ঘার দর্শন

by banganews

দার্জিলিং, ২৪ অগাস্ট, ২০২০ঃ করোনার ছোবলে প্রায় ৬ মাস গৃহবন্দি বিশ্ববাসী। নিউ নরমাল আর সোশাল ডিস্ট্যান্সিং-এর চক্করে খাঁচায় থাকতে থাকতে ওষ্ঠাগত প্রাণ। বিশেষ করে ভ্রমণপিপাসু মানুষদের তো ‘ছেড়ে দে মা কেঁদে বাঁচি’ অবস্থা। এই পরিস্থিতিতে একটু আশার আলো দেখাল রাজ্য সরকারের পর্যটন দফতর। এবার বোধহয় ‘হারে রে রে রে রে আমায় ছেড়ে দে রে দে রে,
যেমন ছাড়া বনের পাখি
মনের আনন্দে রে’ গাইতে গাইতে বেরিয়ে পড়া গেলেও যেতে পারে। সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকেই খুলে যাচ্ছে বাঙালির প্রিয় দীপুদা(দীঘা-পুরি-দার্জিলিং)-এর একটি, দার্জিলিং।

আরও পড়ুন ডিজিটাল ‘পড়ুয়া’কে পুরস্কার, মেডেল থেকে ভার্চুয়াল ক্যাম্পাস ভ্রমণ, তাক লাগাল আইআইটি বোম্বে-র কনভোকেশন

হোটেল অ্যাসোসিয়েশন, ট্রাভেল এজেন্সি ও পর্যটন ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত প্রতিনিধিদের নিয়ে রবিবার সন্ধ্যায় এক বৈঠকের পর পর্যটকদের আনাগোনায় সম্মতি দেওয়া হয়েছে। তবে ঠিক কবে থেকে সব খুলবে সেই দিনক্ষণ এখনও স্থির হয়নি।
দার্জিলিংয়ের মূল ভিত্তি হল পর্যটন শিল্প। কাঞ্চনজঙ্ঘা আর সারি সারি চা বাগানের টানে সারা বছরই ভিড় লেগে থাকে রাজ্যের শৈল শহরটিতে। লাগাতার লকডাউনে অন্যান্য জায়গার মতই বেশ কয়েকমাস পুরোপুরি বন্ধ পাহাড়ের পর্যটন। ফলে বিপুল আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছেন সেখানকার ছোট, বড় ব্যবসায়ীরা। এবছরের আর ব্যবসা শুরু হওয়ার আশা ছেড়েই দিয়েছিলেন হোটেল, রিসর্টের মালিক, দোকানি থেকে ট্রাভেল এজেন্ট ও অন্যান্য ব্যবসায়ীরা।

আরও পড়ুন করোনার উপসর্গ চেনা এখন আরও সহজ, ফলে সুবিধা মিলছে চিকিৎসা এবং গবেষণাতেও

পাহাড়ের করোনা পরিস্থিতি দেখে আগামী মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে পর্যটকদের দার্জিলিং যাওয়া চালু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও, চিন্তা থেকেই যাচ্ছে। বাইরে থেকে আসা পর্যটকরা যদি উপসর্গহীন করোনা ভাইরাস বাহক হন তাহলে ওই এলাকায় সংক্রমণ বাড়বে। এবং সেক্ষেত্রে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে। তাই সবদিক বিবেচনা করে ধীরেসুস্থেই সিদ্ধান্ত নেবে পর্যটন দফতর।

You may also like

1 comment

Leave a Reply!