Home Uncategorized প্রণব মুখোপাধ্যায়ের সামনে বসে তাঁর মূর্তি তৈরি করাটাই লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট- নিরঞ্জন প্রধান

প্রণব মুখোপাধ্যায়ের সামনে বসে তাঁর মূর্তি তৈরি করাটাই লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট- নিরঞ্জন প্রধান

by banganews

বঙ্গ নিউস, ০১ সেপ্টেম্বর, ২০২০ঃ  ভাস্কর্য্য শিল্পকলায় গত পাঁচ দশক ধরে অনন্য কীর্তির স্বাক্ষর রেখেছেন শিল্পী নিরঞ্জন প্রধান। প্রণব মুখোপাধ্যায় রাষ্ট্রপতি থাকাকালীন মূর্তি তৈরির জন্য তাঁর ডাক আসে সরাসরি রাষ্ট্রপতি ভবন থেকে ৷ অত্যন্ত কম সময়ের মধ্যেই প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির মূর্তি তৈরি করতে হবে জেনেও সেই চ্যালেঞ্জটা হাসিমুখেই গ্রহণ করেছিলেন নিরঞ্জন প্রধান ৷

আরও পড়ুন আশিতম জন্মদিনে জীবনের সেরা উপহার পেলেন প্রণব মুখোপাধ্যায়

নিরঞ্জনবাবুর কথায়, ‘‘সে সময়ের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের মূর্তি তৈরি করাটাই আমার কাছে আসল ৷ টাকাটা সেখানে গুরুত্বপূর্ণ নয় ৷ এই প্রাপ্তি আর ক’জনের ভাগ্যে হয় ? তখন রাষ্ট্রপতির কিছু ছবি পাঠাতে বলি ৷ সেগুলি দেখে কলকাতা থেকেই মাটির মূর্তিটা প্রাথমিকভাবে তৈরি করে নিয়ে গিয়েছিলাম ৷ বাকি ফিনিশিং টাচটা দিই রাষ্ট্রপতি ভবনে বসেই ৷ প্রণব মুখোপাধ্যায়কে সামনে পেয়ে তাঁর লাইভ মূর্তি তৈরি করার সুযোগ পাওয়াটা সত্যি লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট ৷’’’

রাষ্ট্রপতির মতো দেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এবং ব্যস্ত মানুষের পক্ষে মূর্তির জন্য বেশি সময় দেওয়াটা সম্ভব নয়। তাই প্রস্তুতিও নিয়ে গিয়েছিলেন কলকাতা থেকে ৷ পাঁচ দিন আধ ঘণ্টা করে সময় দিয়েছিলেন প্রণব বাবু৷ কাজটা কী করে ভাল হয়, তার জন্য প্রণববাবু নিজেই অনেক বেশি উদ্যোগী ছিলেন ৷ এদিকে সময় খুব তাড়াতাড়ি কাটছিল, তাই শেষের দিনগুলিতে রাষ্ট্রপতি নিজেই বললেন, দেখুন এতে হবে তো ? জানান নিরঞ্জনবাবু৷

প্রণব মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে রাষ্ট্রপতি ভবনে আলাদা করে কথা বলার ইচ্ছে প্রকাশ করলে অত্যন্ত ব্যস্ততার মধ্যেও একদিন লাইব্রেরি রুমে ডেকে কথা বলেছিলেন রাষ্ট্রপতি ৷ নিরঞ্জনবাবু জানান, সবার সামনে খানিকটা রাষ্ট্রপতি ভাব থাকলেও ওইদিন লাইব্রেরিতে বসে ওঁর সঙ্গে কথা বলে মনে হয়েছিল যে প্রণব মুখোপাধ্যায় সত্যিকারের একজন ভাল মানুষ ৷

আরও পড়ুন করোনা আবহে অর্ডার না পেয়ে মাথায় হাত মৃৎশিল্পীদের।

উদ্বোধনের আগে রাত জেগেই রং করেছিলেন শিল্পী ৷ মূর্তি দেখে রাষ্ট্রপতিও খুব খুশি হয়েছেন বলে জানান ৷ রাজনীতি করে এমন সহজ মানসিকতার মানুষ যে হওয়া যায়, সেটা রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়কে সামনের থেকে না দেখলে বোঝা সম্ভব নয় ৷

You may also like

Leave a Reply!