Home বঙ্গ ভাইয়ের হয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিতে চায় শুভেন্দুর ভাই সাংসদ দিব্যেন্দু

ভাইয়ের হয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিতে চায় শুভেন্দুর ভাই সাংসদ দিব্যেন্দু

by banganews

তমলুক, ৩০ ডিসেম্বর, ২০২০ঃ   শান্তিকুঞ্জের এক সদস্য শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করলেও এখনো তৃণমূলের  মেম্বার রয়েছে সাংসদ শিশির, দিব্যেন্দু অধিকারী ও কাঁথি পুরসভার ১০ বছরের চেয়ারম্যান সৌমেন্দু অধিকারী। শুভেন্দু অধিকারী দল ছাড়ার পর শিশির, দিব্যেন্দু ও সৌমেন্দুকে নিয়ে নানা রাজনৈতিক চর্চা শুরু হয়।শুভেন্দু বিজেপিতে যোগদান করার পর যেভাবে তৃণমূলের বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ণ কথা বলে চলেছে। সেই কারনেই কাঁথি পুরসভার প্রশাসকের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন নতুন বছর থেকে মেট্রো সফরে মাত্র ৪ ঘন্টা লাগবে ই-পাস, জেনে নিন বিশদে

ভাই সৌমেন্দুকে অপসারণ নিয়ে আগেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দিব্যেন্দু অধিকারী। এবার এবিষয়ে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি দেবেন তিনি। জানিয়েছেন, তাঁর ভাইকে দায়িত্বে পুর্নবহাল না করা হলে শুধু তিনি নন, তাঁর বাবা প্রবীণ সাংসদ শিশির অধিকারীও যাবেন না পুরসভার অফিসে।মঙ্গলবার রাতে সৌমেন্দু অধিকারীর অপসারণের বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই চাপানউতোর শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। প্রকাশ্যেই সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছেন তমলুকের তৃণমূল সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী। এরপরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেন তিনি। কী থাকবে এই চিঠিতে? জানা গিয়েছে, বিষয়টি ব্যাখা করার পাশাপাশি এক বিধায়ককে কাঠগড়ায় তুলে সাংসদ লিখছেন, “এক তৃণমূল নেতার মিথ্যে অভিযোগের ভিত্তিতে অবিচার ও অনৈতিক সিদ্ধান্তের শিকার হতে হচ্ছে সৌমেন্দুকে। অবিলম্বে তাঁকে দায়িত্ব ফেরাতে হবে। পুরনো প্রশাসক বোর্ডের হাতে দায়িত্ব তুলে দিতে হবে।” নাহলে তাঁর পথে হেঁটে বাবা শিশির অধিকারীও পুরসভার অফিসে যাবেন না বলেই দাবি দিব্যেন্দুর।

আরও পড়ুন ফের জারি হতে পারে নাইট কারফিউ

পাশাপাশি চিঠিতে সাফ দিব্যেন্দু লিখেছেন, তিনি এবং তাঁর বাবা শিশির অধিকারী ও ভাই সৌমেন্দু তৃণমূলে ছিলেন আর আছেন।আগামীদিনে থাকবে। তবে রাজনৈতিক মহল মনে করছেন এই মুহুর্তে রাজ্যের অন্যতম নেতা শুভেন্দু অধিকারী যেভাবে তৃণমূলের বিরুদ্ধে একের পর এক হুংকার দিয়ে চলেছে তাতে করে অধিকারী পরিবার শুভেন্দুকে ছেড়ে থাকতে পারবে কি? এটাই এখন সকলের মুখে মুখে ঘোরপাক খাচ্ছে।।

You may also like

Leave a Reply!