Home বঙ্গ শুভেন্দু দায়িত্বশীল নেতা, বিজেপি কে বিশ্বাস করি না : শিশির অধিকারী

শুভেন্দু দায়িত্বশীল নেতা, বিজেপি কে বিশ্বাস করি না : শিশির অধিকারী

by banganews

কাঁথিঃ বর্তমান সময়ে রাজ্য রাজনীতির আলোচ্য বিষয় হয়ে উঠেছে মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। বিভিন্ন সংবাদপত্র, সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে একটাই আলোচনা রাজ্য রাজনীতিতে সব থেকে বেশী আলোড়ন ফেলেছে তৃণমূলের অত্যন্ত জনপ্রিয় মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী কি বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন? । যা ঘিরে ক্রমাগত তোলপাড় হচ্ছে রাজ্য রাজনীতি।কিন্তু দীর্ঘ রাজনৈতিক ইতিহাস ঘাটলে দেখা যাবে কংগ্রেস ও পরে তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথির অত্যন্ত জনপ্রিয় বরিষ্ঠ নেতা সাংসদ শিশির অধিকারী ও তার পরিবার। তাঁর চার ছেলের মধ্যে ৩ ছেলেই বর্তমানে তৃণমূলের প্রথম সারিতে থেকে সাধারন মানুষের পাশে থাকছে। শুভেন্দু অধিকারী নন্দীগ্রামের বিধায়ক এবং গুরুত্বপূর্ণ কেবিনেট মন্ত্রী, দিব্যেন্দু অধিকারী তমলুকের সাংসদ আর সৌমেন্দু অধিকারী কাঁথি পুরসভার চেয়ারম্যান হিসাবে রয়েছেন।

আরও পড়ুন করোনা পজিটিভ হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী

এহেন পরিবারের নেতা শুভেন্দু অধিকারীর আচমকা বিজেপি যোগের খবরে তাই শোরগোল পড়েছে অধিকারী গড় তথা পূর্ব মেদিনীপুরে। তবে এই খবর প্রকাশ্যে আসার পর থেকে ঘটনায় অধিকারী পরিবারের কারও মন্তব্য জানা যায়নি। তবে এবার বিষয়টি নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখে বেশ কিছু জবাব দিয়েছেন শিশির অধিকারী।
শুধুমাত্র ছেলের বাবা হিসেবে নয়, একজন বরিষ্ঠ ও অভিজ্ঞ রাজনীতিবিদের মতোই তিনি গোটা বিষয়ে সুচারুভাবে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন। সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে সংক্ষিপ্ত কথোপকথনের কিছু অংশ তুলে ধরা হল

দেখুন ভিডিও 

সাংবাদিকের প্রশ্ন, ফেসবুকে একটা কথা আলোচনার বিষয়বস্তু হয়ে দাঁড়িয়েছে, শুভেন্দুবাবু নাকি বিজেপির সঙ্গে মিটিং করছেন ? উত্তরে একরাশ বিরক্তি নিয়ে কাঁথির তৃণমূল সাংসদ তথা রাজ্যের মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর বাবা শিশির অধিকারীর চটজলদি জবাব, “শুভেন্দুবাবু খুব দায়িত্বশীল নেতা, প্রদেশের বিভিন্ন নেতা, মুখ্যমন্ত্রী আছেন, তাঁদেরকে জিজ্ঞাসা করুন”।
“এইসব জিনিস কোথা হচ্ছে, কেন হচ্ছে জানা নেই।” এবার সাংবাদিকের প্রশ্ন, তবে কি বিজেপি এভাবে প্রচার করছে বলে মনে করছেন ? শিশিরবাবুর উত্তর, “ওদের কথা আমি বিশ্বাস করি না। ওই পার্টির নাম আমি বিশ্বাস করি না।”
তাঁর আরও সংযুক্তি, “যারা প্রচার করছে তাঁদের জিজ্ঞাসা করুন।” তিনি আবারও স্মরণ করিয়ে দেন, “শুভেন্দুবাবু আমাদের দায়িত্বশীল নেতা, তারপর তিনি মন্ত্রী। তিনি মানুষের প্রতিনিধিত্ব করছেন। তিনি জানেন কোনটা ঠিক হবে।” এখানে আলোচনার শেষ নয়। আগামীদিনে অধিকারী পরিবার কোন পথে হাঁটেন তা দেখার অপেক্ষায় আমজনতা।

You may also like

4 comments