Home ফিচার চিৎপুরের মা সর্বমঙ্গলা

চিৎপুরের মা সর্বমঙ্গলা

by banganews

চিৎপুর এর গান এন্ড শেল ফ্যাক্টরির পাশেই অবস্থিত চিৎপুর সর্বমঙ্গলা মন্দির। কথিত, চিৎপুরের রঘু ডাকাত একদিন দল বল নিয়ে মন্দির এর উত্তরের পুকুরে ভ্রমণ করছিলেন। বেড়ানোর সময় পুকুরে একটি দেবী মূর্তি আর একটি মহাদেবের মূর্তি দেখতে পান। তা দেখে তিনি চলে যান , কিন্তু সে রাতে দেবী স্বপ্নে বলেন , ” আমি মহাশক্তি দেবী সর্বমঙ্গলা সভৈরব জলাশয়ে পড়ে আছি। আমায় তুলে নিয়ে গিয়ে পুজো কর , এবং দস্যু বৃত্তি ছেড়ে সাধারন জীবন যাপন কর। ”

আরো পড়ুন

ভাদু জাগরণ শেষে আজ ভাদু বিসর্জন

রঘু ডাকাত স্বপ্নাদেশ পেয়ে ১৮০০ খ্রীষ্টাব্দে এই মন্দির গড়ে দেবী মূর্তি প্রতিষ্ঠা করেন। রঘু ডাকাতের কাছে দেবী পূজিত হন ‘ সর্বমঙ্গলা ‘ নামেই। কথিত আছে সাধক রামপ্রসাদ একবার গঙ্গা দিয়ে যাওয়ার সময় দেবী তার কাছে গান শুনতে চান। রামপ্রসাদ বলেন ,তার গান শুনতে হলে দেবী যেন তার দিকে মুখ করে অধিষ্ঠান করেন। এরপরই নাকি দক্ষিনমুখী দেবীমূর্তি গঙ্গার প্রবাহের দিকে ঘুরে পশ্চিমাস্যা হয়ে যান। চিৎপুরের এই দেবীমূর্তি চতুর্ভুজা এবং সিংহবাহিনী।ছোট মন্দির, নিরিবিলি শান্ত পরিবেশ। চিৎপুরের এই সর্বমঙ্গলা মন্দির ভক্তদের কাছে নিশ্চিতভাবেই শান্তির পীঠস্থান।

 

You may also like

Leave a Reply!