Home দেশ ফিরে দেখা বাঙালির গর্ব প্রণব মুখার্জির জীবন

ফিরে দেখা বাঙালির গর্ব প্রণব মুখার্জির জীবন

by banganews

বঙ্গ নিউস, ৩১ অগাস্ট, ২০২০ঃ  ১৯৩৫ এর ১১ ডিসেম্বর হিন্দু ব্রাহ্মণ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন পশ্চিমবঙ্গের বীরভূম জেলার মিরাটিতে। রাষ্ট্রবিজ্ঞান ও ইতিহাসে স্নাতকোত্তর শেষে আইনে এল এল বি করেন৷ কর্মজীবন শুরু করেন ডাক ও তার বিভাগের U.D.C.পরে বিধাননগর কলেজে রাষ্ট্রবিজ্ঞানের অধ্যাপক। নির্দল প্রার্থীর হয়ে প্রচার করতে গিয়ে রাজনীতিতে প্রবেশ ১৯৬৯ সালে৷ এরপর ইন্দিরা গান্ধীর হাত ধরে কংগ্রেসে যোগ দেন৷ কংগ্রেস দল থেকে প্রথম রাজ্যসভার সদস্য হন ১৯৬৯ এ৷
• মোট পাঁচবার রাজ্যসভার সদস্য হল ১৯৬৯,১৯৭৫,১৯৮১,১৯৯৩,১৯৯৯
• পশ্চিমবঙ্গ থেকে চারবার রাজ্যসভার সদস্য হিসেবে নির্বাচিত৷
• সর্বপ্রথম কেন্দ্রে শিল্পোন্নয়ন দপ্তরের প্রতি মন্ত্রী হন ১৯৭৩
• জাহাজ ও পরিবহন দপ্তরের মন্ত্রী হন ১৯৭৪ এ
• কেন্দ্রে অর্থ দপ্তরের রাষ্ট্র মন্ত্রী হন ১৯৭৪  এ
• কেন্দ্রে রাজস্ব ও ব্যাঙ্কিং দপ্তরের মন্ত্রী হন ১৯৭৫ এ
• কংগ্রেস দলের/AICC-র(All India Congress committee) কোষাধ্যক্ষ/সদস্য হন ১৯৭৮ এ
• রাজ্যসভায় কংগ্রেসের দলনেতা হন এবং কেন্দ্রীয় বানিজ্য এবং খনি ও ইস্পাত মন্ত্রী হন ১৯৮০ তে৷

• আন্তর্জাতিক অর্থ ভান্ডারের(IMF) বোর্ড অফ গভর্নরস হন 1982 তে৷ সেইসঙ্গে বিশ্ব ব্যাঙ্কের(World Bank) বোর্ড অফ গভর্নরস হন,
এশীয় উন্নয়ন ব্যাঙ্কের(ADB) বোর্ড অফ গভর্নরস হন এবং আফ্রিকান উন্নয়ন ব্যাঙ্কের(ADB) বোর্ড অফ গভর্নরস হন ১৯৮২ তে৷

আরও পড়ুন বিরোধী থাক, বিরোধ নয়—গোটা দেশের ‘বড়দাদা’ প্রণব

• 1984 তে কেন্দ্রীয় বানিজ্য ও সরবরাহ মন্ত্রী হন এবং G-২৪ এর সভাপতি নিযুক্ত হন।
• পঃবঙ্গ প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি হন তিন বার ১৯৮৫,২০০০,২০০১।
• রাজীবের সঙ্গে মনোমালিন্যের জন্য নতুন দল রাষ্ট্রীয় সমাজবাদী কংগ্রেস(RSC) গঠন করেন করেন 1986 সালে।
• 1987 তে AICC-এর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা সেলের সভাপতি হন। দু বছর পর পুনরায় রাজীবের হাত ধরে কংগ্রেসে যোগদান করেন 1989 তে৷ প্রধানমন্ত্রী নরসিমা রাও কর্তৃক পরিকল্পনা কমিশনের সহ-সভাপতি নিযুক্ত হন ১৯৯১ এ৷
• কেন্দ্রীয় বানিজ্য মন্ত্রী হন ১৯৯৩ সালে।
কেন্দ্রীয় বিদেশ মন্ত্রী নিযুক্ত হন দুবার= ১৯৯৫ এবং ২০০৬
SAARC এর মন্ত্রী পরিষদের সম্মেলনের সভাপতি হন ১৯৯৫
• AICC(All India Congress Committee)এর সাধারন সম্পাদক হন- ১৯৯৮
• কংগ্রেসের কেন্দ্রীয় নির্বাচনী সমন্বয় কমিটির সভাপতি হন ১৯৯৯ তে
• সর্বপ্রথম চতুর্দশ* লোকসভা নির্বাচনে জয়লাভ করেন ২০০৪ সালে ( কেন্দ্র-জঙ্গীপুর,মুর্শিদাবাদ,পঃবঙ্গ) এইবছরই লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা হন। এবং কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রী নিযুক্ত হন।
• পুনরায় কেন্দ্রীয় বিদেশ মন্ত্রী নিযুক্ত হন – ২০০৬
• দ্বিতীয়বার পঞ্চদশ* লোকসভা নির্বাচনে জয়লাভ করেন(কেন্দ্র-জঙ্গীপুর,মুর্শিদাবাদ,পঃবঙ্গ) 2009 তে। এবং পুনরায় কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রী নিযুক্ত হন। সেইসঙ্গে পুনরায় G-২৪ এর সভাপতি নিযুক্ত হন।
• সর্বপ্রথম বাঙালি রাষ্ট্রপতি হিসাবে নির্বাচিত হন ২০১২ এর ২২ শে জুলাই। ত্রয়োদশতম রাষ্ট্রপতি হিসাবে শপত গ্রহন করেন ২০১২ এর ২৫ জুলাই। রাষ্ট্রপতি হিসাবে প্রনববাবুকে শপতবাক্য পাঠ করান=এস. এইচ. কাবাডিয়া (সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি)
• কোন রাজনৈতিক জোটের প্রার্থী হিসাবে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন=UPA(United Progressive Alliance) NDA জোটের যে প্রার্থীকে পরাজিত করে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন পি এ সাংমা(লোকসভার প্রাক্তন স্পীকার ছিলেন)
• সরকারের 64বছরের পরিকল্পনা অবলুপ্ত করে NITI আয়োগ গঠনের সাক্ষী হন ২০১৫ এর জানুয়ারিতে। বাংলা দেশের সঙ্গে ছিটমহল চুক্তি সম্পাদনের জন্য 100তম সংবিধান সংশোধনের সাক্ষী হন মে ২০১৫ তে৷
• সরকারের GST বিল পাস করার জন্য ১০১ তম সংবিধান সংশোধনের সাক্ষী ২০১৬ অগাস্ট৷ রাষ্ট্রপতি হিসাবে প্রনববাবু GST বিলে স্বাক্ষর করেন ৮ ই সেপ্টেম্বর ২০১৬ তে৷
• সরকারের পাকিস্তানের মাটিতে জঙ্গী নিধনের জন্যে সেদেশের মধ্যে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের সাক্ষী – 29,Sept,2016
• সরকারের নোট বাতিল(Demonetisation) সিধান্তের সাক্ষী ৮ ই Nov,২০১৬
• সরকারের GST আইন কার্যকর করার সাক্ষী 2017 সেপ্টেম্বরে
• রাষ্ট্রপতি হিসাবে প্রনববাবু পাঁচ বছরের মেয়াদ পূর্ণ করেন ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তে৷
• রাষ্ট্রপতি হিসাবে প্রনববাবু বেতন পেতেন=১.৫ লক্ষ টাকা। প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি হিসাবে প্রনববাবু পেনশন পাবেন ৭৫ হাজার টাকা.
• কিছুদিন আগে অসুস্থ থাকায় হাসপাতালে ভর্তি হন। হাসপাতালে ভর্তি থাকা অবস্থায় প্রনববাবুর মৃত্যু হয় ৩১ অগাস্ট ২০২০

আরও পড়ুন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ ও স্মৃতিচারণা করে ট্যুইট মোদি-মমতার

*প্রনববাবুর উপাধি ও সম্মান*
1. পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ অর্থমন্ত্রী সম্মান=১৯৮৪
2. ভারতের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ অসামরিক সম্মান পদ্মভূষন=২০০৮***
3. ভারতের শ্রেষ্ঠ প্রশাসকের সম্মান=২০১১**
4. বিভিন্ন বিষয়ে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্মানিক ডক্টরেট উপাধি=8টি(২০১১-২০১৫)
5. আসাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্মানিক ডি.লিট উপাধি=২০১২
বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ সম্মান পান ২০১৩ তে।
আইভরি কোস্ট সরকারের গ্রান্ড ক্রস সম্মান এবং
আবাইজান রাষ্ট্রের সাম্মানিক নাগরিকত্বের সম্মান পান ২০১৬ তে

তার লেখা বই গুলি হল
1. Midterm Poll
2. Beyond Survival
3. Off the Track
4. Saga of Struggle and Sacrifice
5. Challenges before the Nations
6. A Centenary History of the INC
7. Congress and the Making of the Indian Nation
8. Thought and Reflections
9. The Dramatic decade:The indira Gandhi years
10. Selected Speeches
11. The Turbulent Years

You may also like

1 comment

Leave a Reply!