Home কলকাতা কংগ্রেস ছেড়ে নতুন দল গড়েছিলেন মমতা, অন্যদলে নাম লেখাননি: সুব্রত মুখার্জি

কংগ্রেস ছেড়ে নতুন দল গড়েছিলেন মমতা, অন্যদলে নাম লেখাননি: সুব্রত মুখার্জি

by banganews

গত কয়েকদিন ধরেই দলবদলের পালা চলছে তৃণমূলে। এই পরিস্থিতিতে জোরাল দাবি করলেন রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ সুব্রত মুখোপাধ্যায়। গতকালই বিজেপি শিবিরে নাম লিখিয়েছেন একদা তৃণমূলের হেভিওয়েট মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। এই প্রসঙ্গে সুব্রত বাবুর দাবি কেউ চলে গেলে তৃণমূলের কিচ্ছু যায় আসে না। কোটি কোটি মানুষের সমর্থন রয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপরে। কয়েকদিন আগে সুব্রত মুখোপাধ্যায় দাবি করেছিলেন গনতান্ত্রিকভাবে না পারলেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে খুন করে বাংলার দখল নিতে পারে বিজেপি। আজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমর্থনে আবারও জোরাল দাবি করলেন এই বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ। গতকাল অমিত শাহ বলেছিলেন একসময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও দলবদল করেছিলেন। এর পাল্টা উত্তর দিলেন রাজ্যের পঞ্চায়েতমন্ত্রী। তিনি বলেন “কংগ্রেস ত্যাগ করার পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ১৯৯৮ সালে তৃণমূল কংগ্রেস প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তিনি অন্যদলে নাম লেখাননি।

বিজেপি বিরোধী লড়াইয়ে পাশে থাকার বার্তা দিয়ে মমতাকে ফোন শরদ পাওয়ারের

নিজের চেষ্টায় একটি দল গড়ে তুলেছিলেন। অমিত শাহের মত কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর এটা জানা উচিত। বারবার বাংলায় এসে একটা দল যদি তৃণমূলকে অপমানজনকভাবে উপেক্ষা করার চেষ্টা করে তা হলে আমরা অবশ্যই প্রতিবাদ করব। রাজ্য সরকারের নামে একের পর এক মিথ্যে কথা বললে আমরা চুপ করে বসে থাকব না। বাংলার মানুষ এই বঞ্চনার জবাব বিজেপিকে দেবে।” সুব্রত মুখোপাধ্যায় এদিন আরও বলেন, ”দেশের প্রধানমন্ত্রী বারবার দাবি করেছেন, তাঁর সরকার নাকি বাংলাকে ধান, শস্য দিয়েছে। কিন্তু তৃণমূলের কর্মীরা সেই ধান, শস্য রাজ্যবাসীকে দেয়নি। নিজেদের মধ্যে ভাগ করে নিয়েছে। কিন্তু আসল সত্যি অন্য। মমতার সরকার রাজ্যের দশ কোটি মানুষকে বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার ব্যবস্থা করেছিল। মহামারীর সময় দেশের কোনও রাজ্য সরকার মানুষের জন্য এমন ব্যবস্থা করতে পারেনি”।

You may also like

Leave a Reply!