Home বঙ্গ মেদিনীপুরে শুরু হল দুদিনের শ্রমিক মেলা

মেদিনীপুরে শুরু হল দুদিনের শ্রমিক মেলা

by banganews

মেদিনীপুর, ৩ জানুয়ারি,২০২১ঃ  সংগঠিত ও অসংগঠিত শ্রমিকদের শ্রম আইন সংক্রান্ত সচতনতা বৃদ্ধি এবং সামাজিক সুরক্ষার অন্তর্ভুক্ত বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা সম্পর্কে জানানো, শ্রমিকদের বিভিন্ন প্রকার সরকারি সুবিধা প্রদান করা ও বিনামূল্যে সামাজিক সুরক্ষা যোজনা প্রদানের লক্ষ্যে আজ থেকে মেদিনীপুরের বার্জ টাউন মাঠে শুরু হল দুদিনের শ্রমিক মেলা । এই দিন এই শ্রমিক মেলার উদ্বোধন করেন রাজ্যের মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র । উপস্থিত ছিলেন পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ প্রতিভা মাইতি সহ জেলার শ্রম দফতরের আধিকারিকরা । এদিনের অনুষ্ঠানে 38 জনের হাতে পেনশন ও বিভিন্ন সুরক্ষার কাগজ তুলে দেওয়া হয় ।

আরও পড়ুন টুইটে বর্ধমান বানান ভুল, নেটিজেনদের হাসির খোরাক রাজ্যপাল

আগে সুরক্ষা পেনশন পাওয়ার জন্য শ্রমিকদের একটি পরিমাণ অর্থ দিতে হত । এখন থেকে বিনা পয়সায় সামাজিক সুরক্ষা যোজনা পাওয়েল যাবে তাও জানিয়ে দেওয়া হয় । ” সামাজিক সুরক্ষা যোজনার সুবিধা পাওয়ার জন্য শ্রমিকদের কোনও অর্থ দিতে হবে না । পুরোটাই রাজ্যের সরকার দেবে” , বলে জানিয়েছেন সৌমেন মহাপাত্র ।

এই সঙ্গে বিজেপি ও কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করে সৌমেনমহাপাত্র বলেন, ” জি এস টি প্রাপ্য সহ রাজ্যের পাওনা বাবদ 58 হাজার কোটি টাকা কেন্দ্র দিচ্ছে না । রাজ্যকে বঞ্চনা করে তাদের দলের নেতা, মন্ত্রীরা নানা বড় বড় কথা বলছেন । রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে ও এই রাজ্যকে ছোট করে দেখাতে চাইছেন । রাজনৈতিক সাম্প্রদায়িকতা সৃষ্টি করে একটা উগ্র সাম্প্রদায়িক পরিস্থিতি ও অস্থিরতা তৈরি করতে চাইছেন । মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছেন । তারা যে ধোকা দিচ্ছে মানুষ তা দেখতে পাচ্ছেন । ” এই সঙ্গে তিনি বলেন, ” এই রাজ্যকে বিপর্যস্ত করার অধিকার আপনাদের নেই । রাজ্যের মানুষ আপনারদের ক্ষমা করবে না ।”

এই বছরেই বিধানসভা নির্বাচন হবে । তার প্রসঙ্গ টেনে সৌমেন মহাপাত্র বলেন, ” রাজ্যের সরকার মানুষের জন্য কাজ করে চলেছে । সরকারের কাজ দিয়ে বুঝতে হবে যে আপনারা কাকে সরকারে আনবেন ।”

আরও পড়ুন নতুন বছরে বাদশার চমক

এই মাসেই জেলার খড়্গপুর ও ঘাটালের পাশাপাশি ঝাড়গ্রামেও এই ধরনের শ্রমিক মেলা র আয়োজন করা হবে বলে জানিয়েছেন শ্রম দফতরের আধিকারিকরা ।

এই শ্রমিক মেলায় আওতাভুক্ত শ্রমিকদের বিভিন্ন প্রকার সরকারি সুবিধা প্রদান করা হচ্ছে । সেই সঙ্গে থাকছে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও স্ব-সহায়ক গোষ্ঠীর স্টল ।

You may also like

Leave a Reply!