Home পাঁচমিশালি মহাশূন্যে প্রাণের খোঁজে বড়সড় পদক্ষেপ জাপানের

মহাশূন্যে প্রাণের খোঁজে বড়সড় পদক্ষেপ জাপানের

by banganews

টোকিও, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০: পৃথিবীর বাইরে কি প্রাণ আছে? এই প্রশ্নে বিজ্ঞানীরা এবং মহাকাশচারীরা তোলপাড়। কোনও নিশ্চিত উত্তর মেলেনি এখনও। গবেষণার পর গবেষণা হয়েই চলেছে।
বড়সড় মস্তিষ্কের এই দোদুল্যমান অবস্থায় পথ দেখাল এক আণুবীক্ষণিক অস্তিত্ব। ডেইনোকক্কাস রেডিওডুরান্স। কে সে? আদতে একটি ব্যাকটিরিয়া। ভালোবেসে তাকে কোনান নামেও ডাকা হয়।
কী করল সে? পৃথিবীর বাইরে বুক ফুলিয়ে বেঁচে থেকে দেখিয়ে দিল।

আরও পড়ুন অভিনন্দন ভারত, ছেলের গ্রেপ্তারিতে প্রতিক্রিয়া রিয়ার বাবার

ব্যাপারটা প্রথম লক্ষ করেছেন জাপানের মহাকাশ গবেষকরা। তাঁরা দেখেছেন, মহাকাশে স্পেস স্টেশনের বাইরে দিব্যি বেঁচেবর্তে আছে এই আণুবীক্ষণিক প্রাণ। ব্যাকটিরিয়া হলেও, প্রাণ তো বটেই। স্পেস স্টেশনের ভেতরে কৃত্রিমভাবে প্রাণরক্ষার উপযোগী রসদ এবং পরিবেশ সংরক্ষণের বন্দোবস্ত থাকে। কিন্তু তার বাইরে সেই পরিবেশ বা পরিস্থিতির কোনওটাই নেই। অথচ খোশমেজাজে বেঁচে রয়েছে ব্যাকটিরিয়া।
কতদিন আছে?
এই উত্তর খুঁজতে গিয়েই জাপানি গবেষকদলের চক্ষু চড়কগাছ। এক-দু দিন নয়, ডেইনোকক্কাস রেডিওডুরান্স সেখানে বেঁচে রয়েছে একটানা তিনবছর!

আরও পড়ুন আজ রিয়ার গ্রেফতারির সম্ভবনা

কিন্তু প্রাণধারণের কোনও অনুকূল পরিবেশ ছাড়াই এই ডেইনোকক্কাস রেডিওডুরান্স বেঁচে আছে কীভাবে?
তা নতুন করে ভাবাচ্ছে গবেষকদের। তাহলে কি মহাবিশ্বে প্রাণের অস্তিত্বের খোঁজে এক বড়সড় পদক্ষেপ করা গেল? আপাতত উত্তেজনার তুঙ্গে মহাকাশ বিজ্ঞানীরা।
সুপার ব্যাক্টিরিয়া—ডেইনোকক্কাস রেডিওডুরান্স-কে এই নামেই ডাকছেন মহাশূন্যের গবেষকদল।

You may also like

2 comments

Leave a Reply!