Home বঙ্গ বিশ্বকর্মা পুজোতেও করোনার কোপ, সঙ্কটে মৃৎশিল্পীরা

বিশ্বকর্মা পুজোতেও করোনার কোপ, সঙ্কটে মৃৎশিল্পীরা

by banganews

পাঁশকুড়া, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ঃ  করোনা আবহে মৃৎশিল্পীদের মাথায় হাত। আর মাত্র কয়েকদিন পরেই বিশ্বকর্মা পুজো। অন্যান্য বছর গুলিতে এই সময়ে পূর্ব মেদিনীপুরের পাঁশকুড়ার দক্ষিণ মেছোগ্রাম এলাকায় মৃৎশিল্পীদের চরম ব্যস্ততা থাকলেও এবারে তার উল্টো চিত্র। প্রতিমার বায়না নেই, তাই বসে বসেই দিন কাটাচ্ছেন মৃৎশিল্পীরা।

আরও পড়ুন খারাপ খবর! অক্সফোর্ডের করোনা টিকায় অসুস্থ স্বেচ্ছাসেবক

 

শরতের আকাশে সাদা মেঘের আনাগোনা জানান দিচ্ছে পুজো আসছে। আর মাত্র ক’দিন বাকি বিশ্বকর্মা পুজোর। তার আগে কুমোরটুলির মৃৎশিল্পীরা কেমন আছেন তার খোঁজ নিতেই বেরিয়ে ছিলাম আমরা। মৃৎশিল্পীরা জানান, প্রতিবছর তাঁরা প্রায় ১০০ থেকে ১৫০টি বিশ্বকর্মা প্রতিমা বানান, কিন্তু এবার করোনা আবহে তাঁরা প্রতিমা বানিয়েছেন মাত্র ৩৫-৪০টি। যেকটি প্রতিমা বানিয়েছেন তার বেশির ভাগই বায়না হয়নি। ফলে দুশ্চিন্তার ভাঁজ তাদের কপালে। বেশিরভাগ বিগ বাজেটের বিশ্বকর্মা পূজো গুলি ছোট করে হচ্ছে, প্রতিবছর বিশ্বকর্মা পূজার প্রায় ৩-৪মাস আগে কাজ শুরু হতো, সেখানে মাত্র কয়েকদিন আগেই কাজ শুরু করেছেন মৃৎশিল্পীরা।

আরও পড়ুন হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ, কঙ্গনার অফিস থেকে হাত গোটাল বিএমসি

১০-১২ফুট উচ্চতায় তৈরি হতো ঠাকুর। দাম ছিল ২০০০ থেকে প্রায় ৫০০০টাকা পর্যন্ত। এবছর ঠাকুরের উচ্চতা কমে গিয়ে তিন চার ফুট হয়েছে যার ফলে দামও কমে গিয়ে ৯০০-১০০০টাকার মধ্যেই রয়েছে । করোনা আবহে প্রতিমা বায়না না হওয়ায় মাথায় হাত পড়লেও এখনো আশায় বুক বাঁধছে মৃৎশিল্পীরা।

You may also like

Leave a Reply!